ঢাকাশুক্রবার , ৯ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ ও দুর্নীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আহত
  4. এওয়ার্ড
  5. কৃষি
  6. খেলাধুলা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দিবস
  10. ধর্ম
  11. নির্বাচন
  12. বিনোদন
  13. মৃত্যু
  14. রাজনীতি
  15. শিক্ষা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বই পড়ার দাওয়াত নিয়ে বাইসাইকেলে ৬৪ জেলায় ভ্রমণে অলি

Ranisankailnews24
ডিসেম্বর ৯, ২০২২ ৭:৩৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

খঃ তানজিবুল স্টাফ রিপোর্টারঃ বই পড়ার আনন্দ ছড়িয়ে দিতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন ১৯ বছর বয়সের তরুণ অলি সাব নামের এক তরুণ। নিজের পুরনো ফনিক্স বাইসাইকেল নিয়ে দেশের ৬৪ জেলায় ছুটে চলেছেন এই স্বপ্নরাজ।

দেশের ২৭ জেলা ঘুরে মঙ্গলবার(৬ ডিসেম্বর) রাতে নাটোর জেলায় পৌঁছান তিনি। শনিবার(১০ ডিসেম্বর) সকালে নাটোর থেকে সিরাজগঞ্জ জেলার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন তিনি।

অলি সাব সুনামগঞ্জের তাহেরপুর উপজেলার বালিজুরী গ্রামের কৃষক লুৎফুর রহমানের চার ভাই এক বোনের মধ্যে বড় অলি সাব। কিশোরগঞ্জ জেলার জেড. রহমান প্রিমিয়ার ব্যাংক স্কুল এন্ড কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করছেন।

জানা যায়, গত ৩ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে ৬৪ জেলায় বইপড়া আন্দোলন’ কর্মসূচি শুরু করেন তিনি। দ্বিতীয় পর্বের গত ২০ অক্টোবর নেত্রকোনা থেকে রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ, বগুড়া হয়ে নাটোরে পৌঁছান।

অলি সাব বলেন, ২০১৮ সালে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বালিজুরী গ্রামে সহপাঠিদের নিয়ে একটি বুকক্লাব গঠন করেন তিনি। এরপর তিনি কলেজের পাশেই আরেকটি বই লাইব্রেরি গঠন করেন। প্রতিনিয়তই তার লাইব্রেরীতে শত শত শিক্ষার্থী ও সাধারণ বইপ্রেমি মানুষ বই পড়ছেন। পরবর্তীতে বই পড়ার সচেতনার সৃষ্টিতে ৬৪ জেলায় ভ্রমণের মাধ্যমে আন্দোলন শুরু করেন তিনি।

অলি সাব বলেন, আমাদের চারপাশে অনেক ধরনের আন্দোলন হয়। কেউ পরিবেশ নিয়ে কাজ করছে, কেউ মাদকবিরোধী আন্দোলন নিয়ে, কেউবা আবার রক্ত দানে সচেতনতা তৈরি নিয়ে, কিন্তু আমি করছি বই পড়ার আন্দোলন। ‘জানতে চাই’ এই চিন্তা থেকেই এমন উদ্যোগ নিয়ে আমি ৬৪ জেলায় ভ্রমণ শুরু করেছি।

বইপ্রেমি অলি সাব বলেন, বিভিন্ন জেলায় স্কুল, কলেজ বা ইউনিভার্সিটিতে যাচ্ছি। সেখানকার শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলছি। তাদের সঙ্গে বই পড়ার অভিজ্ঞতা শেয়ার করছি। শিক্ষার্থীরা তাদের বইপড়া নিয়ে কথা শেয়ার করছেন। নাটোরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের অধ্যক্ষ, শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বই পড়ার বিষয়ে কথা বলেছি। পাঠ্যবইয়ের বাহিরে তেমন কেউ বই পড়েন না। তারা অনেক আমার এ আন্দোলন উৎসাহিত হচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা মূলত চারটি মাধ্যমে জ্ঞান অর্জন করতে পারি। বই পড়ে, ভ্রমণ করে, অভিজ্ঞতা থেকে আর আধ্যাত্মিক চিন্তা করে। ভ্রমণে প্রতিটি জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলে আমাকে সহযোগিতা করছেন।তাদের সাথে সাক্ষাৎ করছি, তারা অটোগ্রাফ দেন, সার্বিক সহযোগিতা করছেন আমাকে। আমি যে প্রতিটি ঘরে ঘরে বই পড়ার শখটা যেন পৌঁছাতে পারি। আমি সকলের সহযোগিতায় এভাবে বইপড়ার আন্দোলন নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। আমরা জন্য সবাই দোয়া করবেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।