ঢাকামঙ্গলবার , ৬ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ ও দুর্নীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আহত
  4. এওয়ার্ড
  5. কৃষি
  6. খেলাধুলা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দিবস
  10. ধর্ম
  11. নির্বাচন
  12. বিনোদন
  13. মৃত্যু
  14. রাজনীতি
  15. শিক্ষা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বাবার কারনেই আজকে মার্তেনেল্লি

Ranisankailnews24
ডিসেম্বর ৬, ২০২২ ২:০২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

খেলাধুলা ডেস্কঃ৬ বছর বয়সেই বাবা নামিয়ে দিয়েছিলেন মাঠে। আর এখন সে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ দলে। তাকে “শতাব্দির সেরা ট্যালেন্ট” বলেছিলো লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ।

চলুন শুনি মার্তিনেল্লির ফুটবলে আসার গল্প। 💥🇧🇷

🎙️ মার্তিনেল্লি বলেছে,

“আমরা সবাই জানতাম, বিশ্বকাপের জন্য ব্রাজিল ফুটবল দলের প্রধান কোচ তিতে ২৬ জন খেলোয়াড়কে বেছে নেবেন। শান্ত হয়ে অপেক্ষা করা ছাড়া কিছু করার ছিল না। কিন্তু আমার মাথার ভেতর হাজারো হিসাবনিকাশ চলছিল।
ফরোয়ার্ডের জন্য কয়জনকে নেওয়া হবে? কে কে আছেন? ওনার কি আমাকে প্রয়োজন? আমাকে কি নেবেন? ভেবে ভেবে ক্লান্ত হয়ে গেছি।

যখন তিতে ফোন করলেন, ভীষণ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম। মনে হচ্ছিল, একটা কল্পনার জগতে বাস করছি।
আমার গল্প জানতে হলে আপনাকে আমার বাবা জাও সম্পর্কে জানতে হবে। তাঁর জন্যই আজ আমি এখানে। ছয় বছর বয়সে বাবা আমাকে ব্রাজিলের অন্যতম বড় ক্লাব, কোরিন্থিয়ান্সে নিয়ে গিয়েছিলেন। এমন পাগলামি কে করে বলুন? বাবাদের তো সন্তানকে গল্প শুনিয়ে ঘুম পাড়ানোর কথা। অথচ আমার বাবা সব সময় বলে এসেছেন, ‘খোকা, যখন তোমার বয়স ছয় হবে, তখন তোমাকে নিয়ে যাব…’

তিনি জানতেনও না, আমি আদৌ ভালো খেলতে পারব কি না। তবু সাও পাওলোতে বাড়ির পাশের কোর্টে আমরা প্রতিদিন প্র্যাকটিস করতাম। গোলপোস্টে কোনো জাল ছিল না। আমি বাবার কাঁধে চড়ে বসতাম। কোর্টে পৌঁছেই শুরু হয়ে যেত আমার ছোটাছুটি। ‘বাবা, চলো কাটাকুটি করি! চলো খেলি!’
বাবা বলতেন, ‘আহহা, না না। আজ তোমার বাঁ পায়ের প্রশিক্ষণ হবে।’

বাঁ পা! ভাবুন, তখনো আমার বয়স ছয় হয়নি। বাবা গোলপোস্টে দাঁড়াতেন। আমার দিকে বল এগিয়ে দিতেন। বলতেন, ‘বাঁ পায়ে মারো। আবার মারো। আবার। এভাবে ১০টা, ১০০টা…’

আমি সব সময় অভিযোগ করতাম। বলতাম, ‘উফ! বাবা…’
আমি তো খেলাটা উপভোগ করতে চাইতাম। ‘একদিন পেশাদার খেলোয়াড় হব’—ওসব আমি বলতাম না। টিভিতে বিশ্বকাপ দেখে মনের ভেতর স্বপ্ন জাগত, সেটা ঠিক। যখন আপনার বাড়ির সামনের দিকটা পতাকার রঙে রাঙানো হবে, বাড়ির ১৫ সদস্য পেছনের উঠানে এক হয়ে টিভি দেখবে, বেলুন থাকবে, আতশবাজি ফুটবে, কাজিনরা ছোটাছুটি করবে, চাচা বারবিকিউয়ে হাত লাগাবেন, বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন না দেখে আপনি থাকবেন কী করে?

তবে সত্যিকার অর্থে, বিশ্বকাপ নিয়ে ভাবিনি, আমি শুধু খেলতে ভালোবাসতাম। মা বলতেন, পাগল ছেলেটা সারা দিন শুধু দৌড়ায়।

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।