ঢাকাশনিবার , ১০ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অপরাধ ও দুর্নীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আহত
  4. এওয়ার্ড
  5. কৃষি
  6. খেলাধুলা
  7. জাতীয়
  8. তথ্য প্রযুক্তি
  9. দিবস
  10. ধর্ম
  11. নির্বাচন
  12. বিনোদন
  13. মৃত্যু
  14. রাজনীতি
  15. শিক্ষা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বাড়ি ভাঙচুর থানায় অভিযোগ দায়ের,নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন পরিবারটি

Ranisankailnews24
ডিসেম্বর ১০, ২০২২ ২:০৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃলালমনিরহাট পৌরসভা তালুক খুটামারা( বানভাসা মোড়) বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আজিজুর রহমানের ছেলে মিজানুর রহমানের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করে ১৫ লক্ষ টাকা ও ৩ ভরি স্বর্ণা লুটপাট করেন নুরআলম ও তার সন্ত্রাসীবাহিনীরা।

 

ইতিপূর্বে লালমনিরহাট সদর থানা একটি অভিযোগ করলেও পদক্ষেপ নেননি এখনো সদর থানার পুলিশ, অভিযোগ করার পরও বাড়িতে এসে আবার বিবাদী নুর আলম, বদিউর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম, নুরুজ্জামান , আদম আলী, মাহিনুর বেগম, এলোপতি লাঠিসোটা লোহার শাবন ধারালো ছড়া নিয়ে জনতা দলভুব্ধ হইয়া মিজানের বসতবাড়ি ভাঙচুর করে,বাড়িতে এসে আবার হামলা, টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যান, নুর আলম বলেন মামলা তুলে না নিলে তোকে প্রাণে মেরে ফেলবো।

 

বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মিজানুর রহমান বলেন ,
গলায় চুরি ঠেকিয়ে, নুর আলম ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীরা আমার বাড়িতে এসে আমাদেরকে মারধর করে, শয়ন কক্ষের খাটের তোশকের নীচে রাখা আলমারি চাবি বাহির করিয়া, আমার হজে যাওয়ার টাকা ও জমি বিক্রির টাকা
১৫ লক্ষ টাকা ও ৩ ভরি স্বণা নিয়ে যান, পূর্বপরিকল্পনা ভাবে নুর আলম ও তার সন্ত্রাসীবাহিরা আমার ২.৫ সতক রাস্তার পাশে জমিতে জোর করে ঘর তুলে টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরিয়া ফেলে আমার জমি দখল করেন।ইতি পূর্বে লারমনিরহাট সদর থানায় অভিযোগ করার পরও এখনো আমার অভিযোগের পুলিশ কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

মিজানুর রহমান আরোও বলেন নুর আলম ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী, বলে আমি থানায় টাকা দিয়ে পুলিশকে কিনেছি,পুলিশ আমার কিছুই করতে পারবে না, তুই যদি মামলা তুলে না নিস তাহলে আমি তোকে ও তোর বাড়ির সবাই কে মেরে ফেলবো, এই ভয়ে আমি আবারও লালমনিরহাট সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

 

লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) এরশাদুল আলম বলেন, আমি অভিযোগ পেয়েছি অভিযোগ টি তদন্ত করার জন্য সদর পুলিশ ফাড়ির এস আই তাজরুল কে দায়িত্ব দিয়েছি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য। এদিকে সদর ফাড়ির এসআই তাজরুল গত৭ ডিসেম্বর অভিযোগটির তদন্ত করতে যায়।এ ব্যপারে এসআই তাজরুল এর কাছে যানতে চাইলে তিনি বলেন আসামি পক্ষ আমার সহিদ খারাপ আচরন করেন ও আমার তদন্ত কাজ মোবাইল ফোনে ভিডিও করতে থাকে তখন আমি আসামিদের নিষেধ করলে আসামিরা আমার সংগে খারাপ আচরন করেন। আমি এক পর্যায়ে আসামিদের কাছ থেকে তাদের মোবাইল ফোনটি নিয়ে যাই, এর আগে মিজান একটি জমি সংক্রান্ত অভিযোগ করছিলেন তা তদন্ত করে কোর্টে দাখিল করেছেন সদর থানা কতৃপক্ষ। অভিযোগ কারি মিজান সাংবাদিকদের বলেন যে আমি একজন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার আমার বাড়ী ভাংচুর করে সন্ত্রাসী বাহিনী ভারা করে এনে এবং আমার জমি জোড় পুর্বক দখল করে রাতারাতি টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে ফেলে। এবং আমাকে ও আমার স্ত্রীকে প্রতি মুহুর্ত হুমকি দিচ্ছে এবং অভিযোগ তুলে নিতে বলছে। অভিযোগ তুলে না নিলে আমাকে ও আমার স্ত্রী কে প্রানে মেরে ফেলবে বলে হুমকি প্রদান করছে, এমতঅবস্হায় আমরা স্বামী ও স্ত্রী জীবনের নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি। আমি জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট সুষ্ঠু বিচার পুর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আকুল আবেদন করছি সেই সাথে জেলার মুক্তি যোদ্ধাদের নিকট আমার পরিবারের নিরাপত্তা সহ সকল প্রকার সহযোগিতা কামনা করছি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।